ইউটিউব থেকে আয় করার উপায় – Make Money From YouTube 2021

ইউটিউব থেকে আয় করার উপায় 2021 – দিনের শুরু থেকে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পর্যন্ত আমার আপনার মতো প্রায় 100 কোটি লোক মোবাইলে ইউটিউব ভিডিও দেখে থাকে এবং প্রতি দিন লক্ষ লক্ষ ভিডিও ইউটিউবে upload করা হয়ে থাকে। আপনি কি কখনো জানার চেষ্টা করেছেন এই ভিডিও গুলো কোথা থেকে আসে এবং কে, কেন এই ভিডিও গুলো দিয়ে থাকে। এই ভিডিও গুলো ছাড়ার মূল উদ্দেশ্য হল অনলাইনে টাকা ইনকাম করা। আপনার মনে এখন প্রশ্ন আসতে পারে ভিডিও থেকে আবার কিভাবে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যায়।

আপনি কি জানেন ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করা যায় । বর্তমানে আমার আপনার মতো হাজার হাজার লোক YouTube video upload করে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে। হতে পারে অনেক বন্ধুর জানা আছে YouTube theke kivabe taka income করতে হয়। কিন্তু অনেক ভাই এখনো পর্যন্ত জানেন না কিভাবে ইউটিউব থেকে আয় করতে হয়, হতে পারে আপনি তাদের মধ্যে একজন।

যদি আপনি ও ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় খুঁজছেন, তবে আপনি একেবারে সঠিক জায়গায় এসেছেন। কারন আজকের এই টিউটোরিয়ালে আমরা ইউটিউব থেকে আয় করার জন্য কি কি প্রয়োজন এবং কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা ইনকাম করা যায় তার প্রতি টি ধাপ বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করব।

যদি অনলাইনে টাকা ইনকাম এর কথা বলা হয়, তবে ব্লগিং, ইউটিউব, এফিলিয়েট মার্কেটিং, ফ্রিল্যান্সিং ইত্যাদির মতো অসংখ্য উপায় রয়েছে যেখান থেকে খুব সহজে অনলাইনে টাকা আয় করা সম্ভব। তবে এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হল ব্লগিং এবং অন্যটি হল ইউটিউব।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করবেন – How to make money from youtube channel

ইউটিউবে প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ ভিডিও আপলোড করা হয়ে থাকে। যার একমাত্র উদ্দেশ্য হল ইউটিউব থেকে আয় করা। আর যারা ভিডিও আপলোড করে ইউটিউব থেকে আয় করে তাদেরকে ইউটিউবার বলা হয়ে থাকে।

আজ আমরা এই টিউটোরিয়ালের মাধ্যমে আপনাকে এই বিষয়ে সম্পূর্ণ তথ্য দিতে যাচ্ছি। এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ার পর, আশাকরি আপনি ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জনের প্রতিটি উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে পারবেন।

আজকের এই টিউটোরিয়ালে আপনি যে বিষয় গুলো জানতে পারবেন সেগুলো হল-

  • YouTube কি,
  • কিভাবে ইউটিউব কাজ করে,
  • ইউটিউব থেকে আয় করার জন্য কি কি প্রয়োজন,
  • ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার সেরা টি উপায়।

YouTube কি?

ইউটিউব একটি ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম। যেখানে বিশ্বের যে কোন ব্যক্তি ভিডিও আপলোড করতে পারে । যার জন্য আপনাকে কোন প্রকার টাকা দিতে হবে না। ইউটিউব হল গুগলের একটি পরিষেবা এবং গুগলের অন্যান্য পরিষেবার মতো আপনি প্রতিটি স্মার্টফোনে ইউটিউব অ্যাপ দেখতে পাবেন। অতএব, ইউটিউবে আপলোড করা ভিডিও ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা অন্য যেকোন ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্মের তুলনায় অনেক বেশি থাকে।

তবে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করার জন্য আপনাকে ইউটিউবে একাউন্ট তৈরি করতে হবে, যা YouTube Channel নামে পরিচিত। যদি এখনো পর্যন্ত আপনি নিজের ইউটিউব চ্যানেল তৈরি না করে থাকেন, তবে এই বিষয়ে আমাদের সাইটে একটি পোস্ট রয়েছে। একবার দেখে নিতে পারেন কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে হয়।

YouTube কিভাবে কাজ করে?

YouTube, Google এর পরে দ্বিতীয় বৃহত্তম Search engine এবং বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও সার্চ ইঞ্জিন। যেখানে প্রতি দিন লক্ষ লক্ষ ভিডিও সার্চ করা হয়ে থাকে এবং যারা ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে থাকে তারা নিজের ভিডিও কে search results এর উপরে নিয়ে আসার জন্য Video title, video description এবং tag এর টার্গেট keyword এর ব্যবহার করে থাকে।

YouTube এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল YouTube auto video promot করে থাকে, লক্ষ্য করলে দেখা যায়, যখন আমরা ইউটিউবে ভিডিও দেখি, তখন এই ভিডিও এর related অনেক গুলো ভিডিও YouTube এর পক্ষ থেকে recommend করা হয়ে থাকে।

যেকোনো ভিডিওতে ভিউ আসা নির্ভর করে Channel Subscribers এর উপরে। কারণ ইউটিউব সাবস্ক্রাইবারের উপরে নির্ভর করে কাজ করে থাকে। যে Youtubers এর যত বেশি সাবস্ক্রাইবার থাকবে, তার ভিডিও তত বেশি লোকের কাছে পৌছাবে এবং তত বেশি ভিউ আসবে। তাই লক্ষ্য করে দেখলে দেখতে পাবেন ভিডিও এর শুরুতে অথবা ভিডিও এর শেষে Youtubers রা নিজের Channel Subscribe করার কথা বলে থাকে।

ইউটিউব থেকে আয় করার জন্য কি কি প্রয়োজন?

এতক্ষণ আমরা জানলাম ইউটিউব কি এবং কিভাবে ইউটিউব কাজ করে। এখন আমরা জানব ইউটিউব থেকে আয় করার জন্য কি কি প্রয়োজন অর্থাৎ ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনাকে কি কি কাজ করতে হবে।

ইউটিউব থেকে আয় করার জন্য কেবলমাত্র একটি YouTube Channel এর প্রয়োজন। আর এই ইউটিউব চ্যানেল খোলার জন্য এজটি Gmail id এর প্রয়োজন। যদি আপনার একটা জিমেইল আইডি থাজে তবে খুব সহজে জিমেইল আইডি দিয়ে চ্যানেল তৈরি করে, সেখানে ভিডিও আপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে YouTube channel তৈরি করার আগে ও পরে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে হবে, তারপরেই ইউটিউব থেকে আয় করতে পারবেন। ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার জন্য যে কাজ গুলো করতে হবে সেগুলো নিম্নে বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরা হল –

  • ইউটিউব চ্যানেল খোলার সময় চ্যানেলের জন্য একটি সুন্দর ছোট নাম রাখুন, যেন মনে রাখতে সুবিধা হয়।
  • তারপর চ্যানেল কে প্রফেশনাল লুক দেওয়ার জন্য একটি আদর্শ Channel art এবং Channel Logo তৈরি করুন, তার সঙ্গে নিজের চ্যানেল এর জন্য একটা সুন্দর intro video তৈরি করুন।
  • তারপর ইউটিউব চ্যানেল এর জন্য সুন্দর সুন্দর ভিডিও তৈরি করে আপলোড করুন।ভিডিও upload করার সময় খেয়াল রাখবেন যে নিজের তৈরি করা ভিডিও ছাড়া অন্য কারো ভিডিও আপলোড করবেনা।
  • Videos upload করার পরে বিভিন্ন সোসাল মিডিয়ার share করুন,যেন সেখান থেকে ভিউ এবং সাবস্ক্রাইব আসে।

উপরে দেওয়া স্টেপ গুলো অনুসরণ করার পরে যখন আপনার ভিউয়ার এর সংখ্যা ও সাবস্ক্রাইবার দিনের পর দিন বৃদ্ধি পাবে। তখন আপনি ইউটিউব থেকে আয় করতে পারবেন। এখন আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে কিভাবে আমাদের ইনকাম হবে। ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় অনেক গুলো রয়েছে তবে নিচে আমি বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ অপশন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার সেরা 3 টি উপায়।

এখন আমরা আমাদের আজকের টিউটোরিয়ালের মূল আলোচ্য বিষয় ইউটিউব থেকে আয় করার উপায় গুলো বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করব। YouTube থেকে আয় করার উপায় অনেক রয়েছে তারমধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সহজ উপায় গুলো এই টিউটোরিয়ালে আলোচনা করব।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় গুলোর মধ্যে সবচেয়ে সহজ ও জনপ্রিয় উপায় গুলো হল-

  1. Google Adsense,
  2. Affiliate Marketing,
  3. Sponsored Videos

Google Adsense :

ছোটো ইউটিউবার থেকে শুরু করে বড়ো বড়ো ইউটিউবার সবাই Google adsense এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করে থাকে। যদি আপনি ও গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করতে চান, তবে আপনাকে নিজের YouTube Channel কে Google Adsense দিয়ে monetizations করতে হবে।

যেকোনো ইউটিউবারের আয়ের প্রাথমিক উৎস হল Google adsense. Google Adsense দিয়ে চ্যানেল monetization করতে হলে Google এর কিছু Terms and conditions মেনে চলতে হবে।বর্তমানে মনেটাইজেশন চালু করার জন্য এক বছরের মধ্যে 1000 Subscribers এবং। 4000 hours watch time এর প্রয়োজন। এই শর্ত পূর্ণ করার পরেই Adsense ads দিয়ে নিজের YouTube channel থেকে আয় করতে পারবেন। তবে মাঝে মধ্যে এই শ্রর্ত পরিবর্তন হতে থাকে।

Google adsense এর Ads লাগিয়ে টাকা ইনকাম করার জন্য যে কাজ গুলো করতে হবে সেগুলো হল-

  • 1000 subscriber এবং 4000 ঘন্টা watch time পূর্ণ হওয়ার পরে YouTube channel setting এ গিয়ে Monetization enable করতে হবে।
  • তারপর নিজের Gmail id দিয়ে Google Adsense account create করতে হবে।
  • তারপর Adsense team আপনার চ্যানেল যাচাইয়ের পর Monetization on করে দিবে।তখন আপনার ভিডিও তে ads চলতে শুরু করবে এবং ইনকাম শুরু হয়ে যাবে।আপনার ভিডিও তে যত বেশি ভিউ আসবে আপনি তত বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।
  • যখন আপনার Google adsense এর একাউন্টে $100 পূরণ হয়ে যাবে, তখন Google Adsense প্রতি মাসের 21 তারিখে আপনার Bank account টাকা ট্রান্সফার করে দিবে।

উপরে দেওয়া স্টেপ গুলো অনুসরণ করে Adsense এর মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

Affiliate Marketing

Affiliate Marketing থেকে ও ইউটিউব চ্যানেল এর মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।এর জন্য আপনাকে কেবলমাত্র Flipkart, Amazon এর মতো সাইট গুলোর Product link নিজের ইউটিউব ভিডিও description এ share করতে হবে।যদি কেউ আপনার দেওয়া link এ ক্লিক করে products purchase করে, তবে সেখান থেকে আপনি কমিশন হিসাবে কিছু টাকা পেয়ে যাবেন।

যদি আপনি Affiliate marketing থেকে আয় করতে চান, তবে নিচে দেওয়া স্টেপ গুলো অনুসরণ করুন –

  • প্রথমে Amazon, Flipkart, Clickbank এর মতো সাইট গুলিতে একাউন্ট খুলে Affiliate programme join করুন।
  • তারপর আপনি যে প্রডাক্ট বিক্রি করতে চান,সেই product এর আফিলিয়েট লিংক কপি করে ভিডিও description দিয়ে দিন।
  • যখন কোন লোক আপনার লিংকে ক্লিক করে প্রডাক্ট ক্রয় করবে।তখন কিছু অংশ আপনাকে দেওয়া হবে।

আপনি লক্ষ্য করে দেখলে দেখতে পাবেন, বেশির ভাগ ইউটিউব ভিডিও তে affiliates link দেওয়া থাকে।

Sponsored Videos

Sponsored ভিডিও থেকে ও আপনি প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করতে পারবেন। তবে এই ধরনের ভিডিও থেকে ইনকাম করার জন্য আপনাকে কিছু কাজ করতে হবে। সেগুলো হল-

প্রথমে আপনাকে আপনার চ্যানেলটি জনপ্রিয় করতে হবে অর্থাৎ আপনার ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়াতে হবে এবং একবার এটি সবার কাছে পরিচিত হয়ে গেলে হলে, আপনি স্পনসর ভিডিও থেকে অনেক টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

আপনার চ্যানেলে আপনার বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য জনপ্রিয়তা বাড়ার সাথে সাথে স্পনসররা আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এবং আপনি আপনার ভিডিওর শুরুতে বা শেষে দেখাতে পারেন। কোম্পানিগুলি আপনাকে এই কাজের জন্য টাকা দিবে এবং আপনি স্পনসর ভিডিও এর মাধ্যমে ইউটিউব থেকে আয় করতে পারবেন।

আপনি উপরে দেওয়া পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করে ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করতে পারবেন। এই পোস্টে আমি ওই সমস্ত উপায় গুলো বলেছি, যে উপায় গুলো ব্যবহার করে বেশির ভাগ ইউটিউবার, ইউটিউব থেকে আয় করে থাকে।

কিন্তু এইগুলোর মধ্যে গুগল অ্যাডসেন্স সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এটিকে ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জনের প্রধান উৎস হিসেবে সবাই মনে করে থাকে, তাই গুগল থেকে ইউটিউব চ্যানেলের মনিটাইজেশন কীভাবে সক্ষম করবেন সে সম্পর্কে আপনার সমস্ত তথ্য থাকা উচিত।

বন্ধুরা, আমরা এই পোস্টে ইউটিউব থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় বা ইউটিউব থেকে আয় করার উপায় সম্পর্কে সব তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আমি আশা করি, এই পোস্টটি অবশ্যই আপনার জন্য সহায়ক এবং প্রয়োজনীয় ছিল। যদি আমাদের এই পোস্টটি আপনি পছন্দ করে এবং মনে করে থাকেন এই টিউটোরিয়ালটি আপনার জন্য সহায়ক, তবে অবশ্যই পোস্টটি বন্ধুদের সাথে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন এবং তারপর ও যদি আপনি কোন সমস্যার সম্মুখীন হন তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্টে জানান।

1 thought on “ইউটিউব থেকে আয় করার উপায় – Make Money From YouTube 2021”

Leave a Comment

error: Content is protected !!